মূল্যবান ধাতুর আন্তর্জাতিক বাজারে সোমবার দাম কমেছে স্বর্ণের। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে আরোপিত অভিযোগ তুলে নেয়ার পর থেকে বাড়তে শুরু করেছে ডলারের বিনিময় হার, যার সরাসরি প্রভাব পড়েছে স্বর্ণসহ মূল্যবান সব ধাতুর বাজারে।

স্বর্ণের ধারাবাহিকতায় এদিন রুপা ও প্লাটিনামের দরপতন হলেও চীনের অটোমোবাইল শিল্পে চাহিদা বৃদ্ধির ইঙ্গিতে দাম বেড়েছে প্যালাডিয়ামের। খবর মার্কেটওয়াচ।

নিউইয়র্কের কমোডিটি এক্সচেঞ্জে (কোমেক্স) ডিসেম্বরে সরবরাহ চুক্তিতে স্বর্ণের দাম কমেছে আউন্সে ২৫ ডলার ১০ সেন্ট। সোমবার দিন শেষে এখানে পণ্যটির বাজার স্থির হয় প্রতি আউন্স ১ হাজার ২৭৯ ডলার ৪০ সেন্টে, যা ২৭ অক্টোবরের পর সর্বনিম্ন। আগের দিনের তুলনায় দরপতনের হার ১ দশমিক ৯ শতাংশ, একদিনে দরপতনের হার হিসাবে যা ৪ অক্টোবরের পর সর্বোচ্চ বলে ফ্যাক্টসেট ডাটাসূত্রে জানা গেছে।

কোমেক্সে গত সপ্তাহে স্বর্ণের দাম বেড়েছিল ২ দশমিক ২ শতাংশ। এর মাধ্যমে টানা চার সপ্তাহের ঊর্ধ্বমুখিতায় শেষ হয় পণ্যটির বাজার। যুক্তরাষ্ট্রের প্রাকনির্বাচনী জরিপে রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের অবস্থান জোরালো হওয়ায় ঊর্ধ্বমুখী হয়ে ওঠে মূল্যবান ধাতুটির বাজারপ্রবণতা।

প্রসঙ্গত, এফবিআইয়ের পরিচালক জেমস কমি রোববার মার্কিন কংগ্রেসকে জানান, ই-মেইল কেলেঙ্কারির নতুন করে শুরু করা তদন্তে হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এ সংবাদ প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে ডলারের বিনিময় হার বেড়ে যাওয়া ছাড়াও ঊর্ধ্বমুখী ও গতিশীল হয়ে ওঠে যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজার। একই সঙ্গে তুলনামূলক সুদ ও বাড়তি ঝুঁকিসংবলিত আর্থিক সম্পদেও বিনিয়োগ চাহিদা বাড়তে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় স্বর্ণসহ সুদমুক্ত আর্থিক সম্পত্তিগুলোর দরপতন শুরু হয়।

উল্লেখ্য, হিলারি ক্লিনটন বিজয়ী হলে তা শেয়ারবাজারসহ অর্থনৈতিক পরিবেশের জন্য ইতিবাচক হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তাদের ধারণা, হিলারি রাতারাতি এমন কোনো পদক্ষেপ নেবেন না, যা গোটা বিনিয়োগ বাজারে অনিশ্চয়তার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। অন্যদিকে নির্বাচনে ট্রাম্পের অবস্থান দৃঢ় হয়ে উঠতে শুরু করলে দাম বাড়তে শুরু করে স্বর্ণের। কারণ সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, ট্রাম্পের বিজয় আর্থিক বাজার অস্থিতিশীল করে তোলার পাশাপাশি ফেডের সুদহার বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত আরো বিলম্বিত করে তুলতে পারে।

তবে হিলারি জয়ী হলেই যে স্বর্ণের বাজারে ধস নামবে এমনটি মনে করার কোনো কারণ নেই ইঙ্গিত দিয়ে বুলিয়ানভল্টের গবেষণা প্রধান আদ্রিয়ান অ্যাশ বলেন, চলতি বছরের শুরু থেকে মূল্যবান ধাতুটির দাম ২৫ শতাংশ বেড়েছে। এ বৃদ্ধির পেছনে ট্রাম্পের বিজয়ের সম্ভাবনার কোনো হাত ছিল না। যদিও সোমবার ট্রাম্পের হেরে যাওয়ার সম্ভাবনাতেই সোমবার দাম কমেছে পণ্যটির।

কোমেক্সে সোমবার ডিসেম্বরে সরবরাহ চুক্তিতে রুপার দাম কমেছে আউন্সে ২২ সেন্ট। আগের দিনের চেয়ে ১ দশমিক ২ শতাংশ কমে এদিন পণ্যটির বাজার স্থির হয় প্রতি আউন্স ১৮ ডলার ১৫ সেন্টে। এর আগে গত সপ্তাহে মূল্যবান ধাতুটির দাম কমেছিল ৩ দশমিক ২ শতাংশ।

মূল্যবান অন্য ধাতুগুলোর মধ্যে কোমেক্সে এদিন প্লাটিনামের দাম কমেছে আউন্সে ৩ ডলার ১০ সেন্ট। জানুয়ারিতে সরবরাহের চুক্তিতে এদিন পণ্যটির সর্বশেষ বিক্রয়মূল্য দাঁড়ায় প্রতি আউন্স ১ হাজার ১ ডলার ৪০ সেন্টে। সারা দিনের লেনদেনে পণ্যটির দাম কমেছে দশমিক ৩ শতাংশ। অন্যদিকে এর আগে শুক্রবার পণ্যটির দাম বেড়েছিল প্রায় ১ শতাংশ।

এদিকে বাজারের স্বাভাবিক নিয়মানুযায়ী প্যালাডিয়ামের দরপতনের কথা থাকলেও সোমবার তা ঠেকিয়ে দেয় চীনের অটোমোবাইল শিল্পে চাঙ্গাভাবের খবর। এদিন প্রকাশিত এক খবরে দেখা যায়, অক্টোবরে চীনে মোটরযান বিক্রি হয়েছে ১ লাখেরও বেশি। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় দেশটিতে মোটরযানের বিক্রি বেড়েছে প্রায় ১৪ শতাংশ। দেশটির অটোমোবাইল শিল্পে এ অগ্রগতির ধারা আরো কিছুদিন বজায় থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। দ্বিতীয় বৃহত্ অর্থনীতির দেশটিতে অটোমোবাইল শিল্পের এ চাঙ্গাভাবে গাড়ির দূষণ কমানোয় ব্যবহূত ধাতু প্যালাডিয়ামের চাহিদায় ঊর্ধ্বমুখিতার আভাস পাওয়া যাচ্ছে

কোমেক্সে এদিন ডিসেম্বরে সরবরাহ চুক্তিতে প্যালাডিয়ামের দাম বেড়েছে আউন্সে ৩১ ডলার ৬০ সেন্ট। আগের দিনের চেয়ে ৫ দশমিক ১ শতাংশ বেড়ে এদিন পণ্যটির বাজার স্থির হয় প্রতি আউন্স ৬৩৫ ডলার ৪০ সেন্টে।

 

বাংলাবিজনিউজ/আনোয়ার