দশম জাতীয় সংসদের শেষ এবং ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন শুরু হচ্ছে আজ মঙ্গলবার। এ অধিবেশনে বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত চার লাখ ৬৮ হাজার ২০০ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করবেন। ডিসেম্বরে জাতীয় নির্বাচনের আগে বর্তমান সরকারের শেষ সময়ে সংসদের এই অধিবেশন মঙ্গলবার (৫ জুন) বেলা ১১টায় শুরু হবে।

 

অধিবেশন শুরুর আগে সকাল ১০টায় সংসদীয় কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠক হবে। এতে ২১তম অধিবেশনের সময়কাল এবং কার্যক্রম ঠিক করা হবে।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের (১) দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গত ১৬ মে সংসদের ২১তম অধিবেশন আহ্বান করেন।

বিশাল অঙ্কের বাজেট ঘোষণার মধ্যে দিয়ে টানা ১০ বার বাজেট ঘোষণার রেকর্ড গড়তে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী। এর আগে ১৯৮০-এর দশকে এরশাদের শাসনামলেও দুটি বাজেট উপস্থাপন করেন তিনি।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বাজেটে আগামী অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্র নির্ধারণ করা হয়েছে তিন লাখ ৪০ হাজার ৭৭৫ কোটি টাকা। যা চলমান অর্থবছরের চেয়ে ১৮ শতাংশ বেশি। এতে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল দুই লাখ ৮৭ হাজার ৯৯০ কোটি টাকা।

পাশাপাশি আসছে অর্থ বছরে জিডিপিতে ৭.৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করতে যাচ্ছে সরকার।

প্রাক বাজেট আলোচনায় অর্থমন্ত্রী মুহিত বলেন, এটা নির্বাচনী বাজেট নয়। আমাকে প্রতি বছরই বাজেট উপস্থাপন করতে হয়। আমি নয়টি বাজেট উপস্থাপন করেছি এবং দশমবারের মতো উপস্থাপন করতে যাচ্ছি, এটা কেবল তারই ধারাবাহিকতা।

তিনি আরো বলেন, বাজেটে নির্বাচন উপলক্ষে বড় ধরনের তেমন কোনো পরিবর্তন আসছে না, বরং প্রয়োজন অনুসারেই বাজেট প্রস্তুত করা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, চলতি অর্থবছরে আয়কর দাতাদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বেড়েছে এবং এখনো বেড়ে চলেছে। আয়করা দাতাদের বর্তমান সংখ্যা ৩৩ লাখ ছাড়িয়ে গেছে, যেখানে পূর্বে ছিল মাত্র ১৪ থেকে ১৫ লাখ।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১ জুন ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের জন্য চার লাখ ২৬৬ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করা হয়েছিল।

 

বাংলাবিজনিউজ/আরাফ