চলতি বছর তো বটেই, তিন বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় দরপতন হয়েছে পুঁজিবাজারে। সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের প্রধান পুঁজিবাবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জেসুচক পড়েছে ১৩০ পয়েন্টেরও বেশি। এ নিয়ে গত ছয় কার্যদিবসে সূচক কমল ৩২৭ পয়েন্ট। 

 

আজ দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৩৩ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ২১ শতাংশ কমে ৫ হাজার ৮৮৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এর আগের ২০১৫ সালের ২৬ এপ্রিল ২ দশমিক ৩৩ শতাংশ কমেছিল সূচক। গত পাঁচ কার্যদিবস ধরেই বাজার ছিল নিম্নমুখী। প্রায় ২০০ পয়েন্ট সূচক কমে এই পাঁচ দিন।

কিন্তু হঠাৎ ধস ভাবিয়ে তুলেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থাকেও। আজ বিভিন্ন পক্ষকে নিয়ে জরুরি বৈঠক ডেকেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ। এতে মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন ও ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন এবং শীর্ষ ব্রোকারেজ হাউজের কর্মকর্তারাদেরকে ডাকা হয়েছে।

২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ব্যাপক পতনের পর ২০১৭ সালের শুরু থেকেই বাজার ঘুরে দাঁড়াতে থাকে। ফিরে আসতে থাকে বিনিয়োগকারীরা। ব্যাংকের শেয়ারের দাম বাড়ায় আস্থাও বাড়তে থাকে।

 

বাংলাবিজনিউজ/আরাফ